এক ক্যাচেই ২৪ লক্ষ টাকা পকেটে

ডেস্ক: ইডেন পার্কে নিউজিল্যান্ডের ২৪৩ রান তাড়া করে টি-২০ ক্রিকেটে রেকর্ড জয় তুলে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া৷ শতরান করে আন্তর্জাতিক টি-২০ ক্রিকেটে সর্বাধিক রানের মালিক হয়েছেন মার্টিন গুপ্তিল৷ হাফসেঞ্চুরি করেছেন কনিল মুনরো, ডেভিড ওয়ার্নার ও ডার্সি শর্ট৷ ঘটনাবহুল ম্যাচে বহু রেকর্ড ভাঙা-গড়া হয়েছে৷ তবু দিনের শেষ সব থেকে খুশি কে জানতে চাইলে, দু’দলের কোনও ক্রিকেটারের নাম নেওয়া মুশকিল৷ বরং এমন একজন প্রথমের সারিতে চলে আসবেন, বাউন্ডারির গন্ডিতে ঢুকে পড়া যাঁর পক্ষে সম্ভব ছিল না৷
ইনি কোনও ক্রিকেটার নন৷ বরং নিছক একজন ক্রিকেটপ্রেমী দর্শক, যিনি ইডেন পার্কের গ্যালারিতে বসে উপভোগ করছিলেন ব্যাট-বলের লড়াই৷ ২০ বছর বয়সী মিচেল গ্রিমস্টোন একজন ছাত্র৷ অকল্যান্ডের দর্শকাসনে থাকা সত্ত্বেও যিনি এক মজাদার প্রতিযোগিতায় নাম লিখিয়েছিলেন৷

নিউজিল্যান্ডের এক পানীয় সংস্থা ইডেন পার্কের গ্যালারিতে অভিনব প্রতিযোগিতা চালায়৷ কোনও দর্শক গ্যালারিতে উড়ে আসা ছক্কা এক হাতে লুফে নিতে পারলে তাকে পুরস্কৃত করার কথা ঘোষণা করা হয় ম্যাচের আগেই৷ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে আগ্রহীদের আগে থেকেই কমলা রংয়ের টি-শার্ট সংগ্রহ করতে হয়৷ গ্রিমস্টোনও নাম লেখান এই প্রতিযোগিতায়৷ তিনি ছিলেন দর্শকাসনের একেবারে প্রথম সারিতে৷

নিউজিল্যান্ডের ইনিংস চলাকালীন রস টেলরের একটি ছক্কা সামনের দিকে ঝুঁকে একহাতে লুফে নেন গ্রিমস্টোন৷ ফলে তিনি জিতে নেন ৫০ হাজার নিউজিল্যান্ড ডলারের আর্থিক পুরস্কার, ভারতীয় মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় ২৪ লক্ষ (২৩ লক্ষ ৭৫ হাজার, ৫০০) টাকা৷ স্বাভাবিকভাবেই ক্যাচ ধরার পড় গ্রিমস্টোনের সেলিব্রেশন ছিল দেখার মতো৷ তাঁর সঙ্গে উৎসবে যোগ দিতে দেখা যায় বন্ধুদেরও৷

পরে আস্ট্রেলিয়া ইনিংস চলাকালীন আরও একজন দর্শক একই রকম ক্যাচ ধরলেও তিনি পুরস্কৃত হননি৷ প্রতিযোগিতার নিয়ম অনুযায়ী একটি ম্যাচে একজনই জিততে পারেন এই পুরস্কার৷

ম্যাচের শেষে চেক হাতে নেওয়া ছাড়াও রস টেলরের সঙ্গে ছবি তোলার সুযোগ পেয়ে যান গ্রিমস্টোন৷ টেলর তাঁকে অটোগ্রাফ করা গ্লাভস ও ম্যাচ বল উপহার দেন৷

শেয়ার করুন

কোন মন্তব্য নেই

উত্তর দিতে