কোথায় মেয়র আনিসুল হক ?

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আনিসুল হকের নিজ এলাকা বনানীর বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় দেখা দিয়েছে ত্রুটি। আর এনিয়ে সামান্যতম মাথা ব্যাথা নেই খোঁদ মেয়রের। ফলে স্বাভাবিকভাবেই চরম ক্ষোভ ও হতাশা প্রকাশ করেছেন অনেকেই। কোথায় মেয়র? নিজ এলাকায় ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা বর্জ্যও কি তার চোখে পড়ছে না। এসব প্রশ্ন এলাকার বাসিন্দাদের।

সরেজমিন অনুসন্ধানে দেখা যায়, বনানী কমিউনিটি সেন্টার কাঁচাবাজারের সম্মুখে উন্মুক্ত স্থানে বর্জ্য ফেলা হচ্ছে। বনানীর বাসা-বাড়ি, দোকানপাট, অফিসের বর্জ্য এখানে ফেলার ফলে দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ছে বাজারটির চারপাশে। যার ফলে এলাকার সাধারণ মানুষ বাজারটিতে আসতে দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভোগে থাকেন। অনেকেই দুর্গন্ধের কবলে পড়ার ভয়ে মহাখালীসহ রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে যান কাঁচাবাজার করতে। এতে করে তাদের শারীরিক পরিশ্রম হওয়ার পাশাপাশি সময়ক্ষেপনও হচ্ছে প্রতিনিয়ত।

ঈড়ঢ়ু ড়ভ ওগএথ২০১৫০৮২৭থ১৩১১০২দুর্গন্ধ ছড়াবে না এমন বদ্ধ জায়গায় বর্জ্য রাখার নিয়ম থাকলেও তা মানছে না ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন। অভিযোগ রয়েছে মেয়র আনিসুল হক প্রায়ই বাজারটির সম্মুখ অংশ দিয়ে যাতায়াত করলেও তিনি তা না দেখার ভান করে চলে যান। বনানীর ২৩ ও ২৩/এ নাম্বার রোডের অবস্থা আরও ভয়াবহ। ২৩ নাম্বার রোডের একাংশে দীর্ঘদিন ধরে পড়ে আছে এলাকার বাসা-বাড়ির বর্জ্য। ফলে রাস্তাটি দিয়ে সাধারণ মানুষ ঠিকভাবে চলাফেরা করতে পাচ্ছেন না। শুধু তাই নয়, রাস্তাটি দিয়ে ব্যক্তিমালিকানাধীন গাড়িগুলো যাতায়াত করলেই তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। এতে করে চরম বিরক্তিকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয় সেখানকার সাধারণ মানুষকে। আর ২৩/এ নাম্বার রাস্তাটি দেখলে কেউ বলবে না এই এলাকায় নির্বাচিত মেয়র থাকেন। পুরো রাস্তায় গাছের ডালপালা ও বর্জ্য দিয়ে ভর্তি। গেল রোজার আগে থেকেই এসব ডালপালা ও বর্জ্য পড়ে থাকলেও সরানোর উদ্যোগ নিচ্ছে না ডিসিসি। এদিকে গাছপালা পড়ে থাকায় রাস্তাটির দুই পাশে নির্মিত বাড়িগুলোর বাসিন্দারা রাতের বেলায় পোকামাকড়ের ভয়ে প্রয়োজন থাকলেও বের হতে চান না বলে জানা যায়।
বনানী কমিউনিটি সেন্টার কাঁচাবাজারে বাজার করতে এসেছেন রেদওয়ান রনি। তিনি জানান, এখানে সারাদিন পড়ে থাকা বর্জ্যগুলো রাতের বেলায় অপসারণ করা হয়। কিন্তু সারাদিন পুরো বাজার জুড়েই থাকে দুর্গন্ধ। ফলে বনানীর বাসিন্দা হয়েও বাজারটিতে ঠিকভাবে আমরা বাজার করতে পারি না।

বনানীর ২৩ নাম্বার রোডের অপর এক বাসিন্দা জানান, মেয়র আনিসুল হক তার নির্বাচিত এলাকে শিগগিরই পরিচ্ছন্ন নগরীতে পরিণত করার প্রতিশ্রুতি দিলেও আসলে ত্রুটিমুক্ত বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সর্ম্পকে তার সামান্যতম জ্ঞান আছে বলে আমার মনে হয় না।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা বিপন কুমার সাহা ফোনালাপে আমাদের সময় ডটকমকে বলেন, ‘আমরা সমগ্র ঢাকা উত্তরের বর্জ্য অপসারণে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। তবে বনানী এলাকায় ময়লা আবর্জনা পড়ে আছে এই কথাটি আমি বিশ্বাস করি না। যারা বলছেন বা দেখছেন তারা ভুল দেখছেন বা ভুল বলছেন।’

শেয়ার করুন

কোন মন্তব্য নেই

উত্তর দিতে