প্রবাসীদের ফেলে রাখা বাড়িকে নজরদারির আওতায় আনা হচ্ছে : পুলিশ

ডেস্ক রিপোর্ট :সিলেট অঞ্চলের প্রবাসীদের বাড়িগুলোকে আস্তানা হিসেবে ব্যবহার করছে জঙ্গিরা। প্রবাসীরা বিসালবহুল বাগানবাড়ি কিংবা সুউচ্চ অট্টালিকা তৈরি করে কেয়ারটেকার বা স্বজনদের দায়িত্বে দিয়ে দিয়ে চলে যান প্রবাসে।
নিরিবিলি এসব বাড়িকেই আস্তানা হিসেবে বেছে নিচ্ছে জঙ্গিরা। পুলিশ বলছে, প্রবাসীদের ফেলে রাখা এসব বাড়িকে এখন নজরদারির আওতায় আনা হচ্ছে।
সিলেট বিভাগের চার জেলার প্রায় ২০ লাখ প্রবাসী ইউরোপ-আমেরিকার বিভিন্ন দেশে বসবাস করেন। ধনাঢ্য এসব প্রবাসী তাদের গ্রামের বাড়িতে গড়ে তুলেছেন বিসালবহুল বাগানবাড়ি কিংবা সুউচ্চ অট্টালিকা।
এসব বাড়ি কেয়ারটেকারের হাতে দিয়ে চলে যান প্রবাসে। আর কেয়ারটেকারদের কাছ থেকে সহজেই এসব বাড়ি ভাড়া নিয়ে আস্তানা বানাচ্ছে জঙ্গিরা।
মৌলভীবাজারের নাসিরপুর ও বড়হাটে একই মালিকের দুটি বাড়িতে জঙ্গি আস্তানা খুঁজে পাওয়ায় আলোচনায় এসেছে প্রবাসীদের বাড়ি। এনিয়ে উদ্বিগ্ন প্রবাসীদের নিয়ে কাজ করা সিলেট ওভারসীজ সেন্টার।
সিলেট ওভারসীজ সেন্টারের নির্বাহী কর্মকর্তা সামসুল আলম বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমরা উদ্বিগ্ন। তা যদি হয় তাহলে প্রবাসীরা দেশে যে বিনিয়োগ করে সেটা বন্ধ করে দেবে। এমনিতেই প্রবাসীরা অনেক হয়রানির মধ্যে আছেন। অনেকে জায়গা-জমি দখল করে নেয়। তারমধ্যে উপরি হিসাবে যদি এই ঝামেলা হয় সেজন্য দেশে এবং প্রবাসে সবাই আমরা উদ্বিগ্ন’।
পুলিশ বলছে, নিরিবিলি হওয়ায় জঙ্গিরা এসব বাড়িকেই আস্তানা তৈরির কাজে বেছে নিয়েছে।
এসএমপির অতিরিক্ত উপকমিশনার জেদান আল মুসা বলেন, ‘সিলেটে অধিকাংশ বাড়ির মালিক লন্ডনে থাকে। এগুলো কেয়ারটেকার দিয়ে পরিচালনা করা হয়। কারা ভাড়া নিবে, কারা নিবে না এটা মালিক সঠিকভাবে যাচাই করতে পারে না। সিলেটে বাড়িগুলো দূরে দূরে। বাড়িগুলো গাছ-গাছালি দিয়ে ঘেরা। বাগান বাড়ির মত’।
এদিকে প্রবাসীদের বানানো বাড়ির তথ্যসংগ্রহে কাজ শুরু করেছে পুলিশ। আরো জঙ্গি আস্তানা থাকতে পারে সন্দেহে এসব বাড়ির উপর নজরদারি বাড়ানো হয়েছে।
সিলেটের পুলিশ সুপার মনিরুজ্জামান বলেন, ‘যে বাড়িতে মালিক থাকে না শুধু কেয়ারটেকার থাকে সেসব বাড়ির দিকে আরও বেশি করে নজর দেব। যাতে বাইরের লোক বেশি আনাগোনা করতে না পারে’।
সিলেট অঞ্চলে জঙ্গি অর্থায়নে কোন প্রবাসী জড়িত আছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।
ইনডিপেনডেন্ট টিভি

শেয়ার করুন

কোন মন্তব্য নেই

উত্তর দিতে