এখন আমার জীবনটা পাথুরে সূক্ষ্ম কাগজের মতো: অপু বিশ্বাস

বিনোদন ডেস্ক: চলচ্চিত্রের বর্ণীল জীবন তার। আর এতে যদি যোগ হয় খানিকটা বসন্তের রং, তাহলে তো আরও জীবন্ত হয়ে উঠে। প্রাণে গতি সঞ্চার করে! দীর্ঘদিন ‘আত্মগোপন’। খানিকটা বিরতি। এরপর ফের অভিনয়ে ফেরার শক্ত-পোক্ত ইচ্ছে। এসব যেন এখন ঢাকাই চলচ্চিত্রের নায়িকা অপু বিশ্বাসের ছায়া সঙ্গী।

অনেক দিন ধরেই তিনি নেই সেলুলয়েডের পর্দায়। তাতে কি? দর্শক-ভক্ত কিংবা গণমাধ্যমকর্মীদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে তিনি রয়েছেন। শিগগিরিই পর্দায় ফিরছেন তিনি। এই তো গত কয়েকদিন আগের ঘটনা।

কথা হচ্ছিল অপুর সঙ্গে। তার কাছে জানতে চাওয়া হলো এই সময়ের জীবনটা আপনি কেমন দেখছেন? তিনি জানান, ‘জীবন মানে বসন্তের আকাশে ছবি আঁকা। আর যদি বলি-এখন আমার জীবনটা পাথুরে সূক্ষ্ম কাগজের মতো; সেটাও ভুল বলা হবে না।’

এদিকে ঢাকাই ছবিতে এ সময়ে শাকিব-অপু জুটি বরাবরের মতো আলোচনায়। অপু ফেরার পর অনেকেই বলছেন, শাকিব-অপু জুটির নতুন ছবি কি? কিংবা অপু কোন ছবির মধ্য দিয়ে পর্দায় ফিরবেন? এ বিষয়ে অপুর ভাষ্য, ‘পরিবর্তন দরকার। শাকিবের সঙ্গে আমাকে দেখতে দেখতে দর্শক অভ্যস্ত হয়ে গেছে। নতুন রসায়ন তৈরি করা প্রয়োজন। কয়েকজন পরিচালক আশ্বাস দিয়েছেন। খুব শিগগিরই তারা আমাকে নিয়ে ছবি শুরু করবেন।’

অপু বিশ্বাস বলেন, ‘ইন্ডাস্ট্রি আমার জীবন। ব্যক্তিগত কিছু কারণ ছিল- নিজেকে শারীরিকভাবে ফিট করারও তো একটি বিষয় রয়েছে। আমি একটা বিষয় বিশ্বাস করি, কাজ কাজের মতো থাকবে, কিন্তু প্রত্যেকটা মানুষের ব্যক্তিজীবন রয়েছে, সেটি তার মতো করেই চলবে। যখন আমি গণমাধ্যমের সামনে আসবো, তখন আমি তাদের কিছু কৌতূহল দূর করে দেবো। এর কারণ, আমি যখন সবার সামনে আসব তখন সবাই যেন বিষয়টি উপভোগ করে।’

এছাড়া এখন অপুর সময় কাটছে, জিমে গিয়ে, ডায়েট করে, শপিং করে। মাঝে মাঝে যেটি করেন- নিজের মতো ঘোরাঘুরি। যেমন- ২১ শে ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যার পর তিনি বোরকা পরে বেরিয়েছিলেন। সাধারণ মানুষের একুশ উদযাপন করার বিষয়টি তার বেশ ভালো লেগেছে।

আর বলেন, ‘আমরা ফিল্মের মানুষরা এতোটাই মেকি হয়ে গিয়েছি, জীবন বলতে যে আলাদা একটি বিষয় আছে, সেটি অনেকটা ভুলতেই বসেছি। আমি যখন হাতিরঝিলের পুলিশ প্লাজার ওখান দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলাম তখন সেখানকার চটপটির দোকানগুলোতে দেখছিলাম ছোট ছোট পরিবারগুলো ফুচকা, চটপটি খাচ্ছে। এ দৃশ্যগুলো সত্যিই অসাধারণ।’

‘আমি জেনে বুঝেই সিদ্ধান্ত নেই। আমি আমার এই সময়টাকে উপভোগ করছি।’ এমন মন্তব্য করে অপু বলেন,‘আমার প্রত্যেকটা বিষয়কে আমি একটি পরিকল্পনার মধ্যেই করি। যার কারণে মানসিকভাবে আমি শক্ত থাকতে পারি। আমার কাছে মনে হয় আমি সবার কাছেই আছি; শুধু অবস্থানটা ভিন্ন। এখন ব্যক্তিজীবনের কাছে আছি পেশাগত জীবন থেকে দূরে আছি।’

অপু বিশ্বাস ২০০৪ সালে আমজাদ হোসেনের ‘কাল সকালে’ ছবিতে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে মাধ্যমে চলচ্চিত্রে পদার্পণ করেন। এরপর ২০০৬ সালে এফআই মানিক পরিচালিত ‘কোটি টাকার কাবিন’ ছবিতে প্রধান নায়িকা হয়ে অভিনয় করেন শাকিব খানের বিপরীতে।

এরপর শাকিব খানের সঙ্গে তার জুটি দর্শকদের গ্রহণযোগ্যতা পেয়ে যায়। ‘কোটি টাকার কাবিন’ ছবিটির এই জুটির ‘পিতার আসন’, ‘চাচ্চু’, ‘দাদি মা’, ‘মিয়া বাড়ির চাকর’, ‘জন্ম তোমার জন্য’, ‘মায়ের হাতে বেহেশতের চাবি’ প্রভৃতি ছবিও ব্যবসা সফল হয়।

শেয়ার করুন

কোন মন্তব্য নেই

উত্তর দিতে