মুস্তাফিজের প্রশংসায় যা লিখলো ইএসপিএন

অনলাইন ডেস্ক:
গতকাল ছিলো কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমানের জন্মদিন। এ উপলক্ষে মুস্তাফিজকে নিয়ে এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম।  নিচে তার প্রধান অংশ তুলে ধরা হলো।
বাংলাদেশের বোলার হিসেবে তার যাত্রা সপ্নের মত শুরু হয়েছে। কিন্তু এত বড় পরিবর্তন তার ব্যাক্তিগত জীবনে কোনো প্রভাব ফেলেনি। বরং তারকা খ্যাতির আগের মতই তিনি রয়েছেন অতি সাধারন।
ছোটবেলা থেকেই মা-বাবা বার তার তিন বড় ভাইকে কোনো ঝামেলাই পড়তে হয়নি মুস্তাফিজুর রহমানকে নিয়ে। সে ছিলো খুব শান্ত ছেলে। ছেটবেলাই সে খাবারও খেত বাম হাত দিয়ে অতপর কিছুটা বড় হলে তার মা তার এ অভ্যাস পরিবর্তন করেন।
মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, আমি সবকিছুই বাম হাতে করতাম।  পরে আমি শুধু খাবার খাওয়া ব্যাতিত সব কাজ বাম হাতেই করতাম।
মুস্তাফিজের গল্প যাদের দিয়ে শুরু। তাদের মধ্যে রয়েছেন পাকিস্তানের হার্ড হিটার শহিদ আফ্রিদি। কেননা তিনিই হলেন তার প্রথম আন্তর্জাতিক উইকেট।  এ বিষয়ে মুস্তাফিজ বলেন, ‘সে বলটিকে মারেনি কিন্তু আমি আমার কাজটি ঠিকভাবে করেছি। তখন কেউ উপলদ্ধি করেনি আসলে কী ঘটছে।’
মুস্তাফিজ কখনো স্লেজিং করেন না। এমনকি ব্যাটসম্যান যখন তার বল মারার সময় কিছু বলে তখনও। অন্যান্য পেস বোলারের মত তিনিও মাঠের বাইরে থাকতে পছন্দ করেন না। সেটা লং ভার্সনের ক্রিকেটেও।  তিনি মনে করেন প্রথম টেস্টে হাসিম আমলা, ডুমিনি ও ডি ককের উইকেট প্রাপ্তি আমাকে অনেক সাহায্য করেছে।
মুস্তাফিজ বলেন, আমি সব সময় নতুন ব্যাটসম্যানদের ক্ষেত্রে উইকেটে বল করার চেষ্টা করি।
তিনি বলেন, আমি কখনো স্লেজিং করি না। কিছু লোক আমাকে বলেছেন পেস বলাররা এটা করে থাকেন। কিন্তু আমি মনে করি, ব্যাটসম্যানরা তাদের কাজ করে আর আমি আমার কাজ করি। আমি বিরাট কোহলির উইকেট পাইনি। যদিও এটা পাওয়া খুবই বড় ব্যাপার। একটি ম্যাচে বিরাট আমার বলে ৪,৬ মেরে আমাকে জিজ্ঞেস করেছিলো, তোমার বল এত স্লো কেন? কিন্তু আমি তাকে কিছুই বলিনি।

 

শেয়ার করুন

কোন মন্তব্য নেই

উত্তর দিতে