হলুদ পরী

আমার ফ্রেন্ডলিস্টে যতগুলা মেয়ে ফ্রেন্ড আছে, তার
মধ্যে সাদিয়া অন্যতম । ওর সাথে আমার পরিচয় একটা
ফেসবুক গ্রুপে । একদিন দেখি একটা গ্রুপে ও পোস্ট
দিয়েছে, বন্ধুরা আমার একটা শখের আইডি ফটো
ভেরিফিকেশন হয়ে গেছে । কেউ কি ঠিক করে দিতে
পারবে ? আমি পোস্টটি দেখেও অগ্রাহ্য করলাম ।
কিছুক্ষন পরে দেখি ঐ পোস্টে আমার এক ফ্রেন্ড
আমাকে মেনশন করে কম্মেন্ট করেছে । “আশিক অল্প
সময়ে ফটোভেরিফিকেশন ঠিক করতে পারে”
.
একটু পরে সাদিয়া নামের মেয়েটি আমাকে ম্যাসেজ
দিল, ‘হ্যালো ভাইয়া! ভালো আছেন?’
আমি ম্যাসেজ দেখে হেতু বুজতে পারলাম । বললাম,
‘ভালো’ । ভদ্রতা দেখিয়ে বললাম, আপনি কেমন আছেন?
-জ্বি ভালো । একটা হেল্প করবেন ?
– কি হেল্প ? (যদিও জানতাম কি ধরনের হেল্প চাইছে)
-আমার একটা শখের আইডি ফটো ভেরিফিকেশন হয়ে
গেছে । ঠিক করতে পারছিনা । সাগর ভাইয়া বলল, আপনি
নাকি ঠিক করতে পারেন ।
-ও এই কথা । আসলে আমি একটু ব্যস্ত ।
-ভাইয়া খুব শখের আইডি। যদি একটু কষ্ট করতেন।
.
মেয়েটির জোরাজুরিতে অবশেষে ওর থেকে ইমেইল আর
পাসওয়ার্ড নিয়ে বললাম, আমি সময় পেলে দেখব ।
-ওকে ধন্যবাদ ।
.
এর কিছুদিন পরে আবার সাদিয়ার ম্যাসেজ পাই, ‘ভাইয়া
দেখেছেন ?’
-আসলে সময়ই পাইনি ।
ও মন খারাপের একটা ইমো দিল ।
ইমোটা দেখে আমার কেন যেন খুব খারাপ লাগল । বুকের
ভিতর মোচড় দিয়ে উঠল । আমি ওর দেওয়া ইমেইল আর
পাসওয়ার্ড নিয়ে লগইন করে জাপানি প্রক্সির
সাহায্যে ওর আইডিটা ঠিক করে দেই । ওর প্রোফাইল
ঘাটতে খুব ইচ্ছে করছিল । কিন্তু কারো ব্যক্তিগত
জিনিষ দেখতে, খুব অস্বস্তি লাগছিল । তাই দেখিনি ।
.
ওকে ম্যাসেজ দিয়ে বললাম, ঠিক করেছি । আমাকে
ট্রিট দিতে হবে কিন্তু !
-সত্যি ভাইয়া! ধন্যবাদ । এতো তাড়াতাড়ি ঠিক
করেছেন ?
-হুম । এবার গিয়ে পাসওয়ার্ড চেঞ্জ করুন ।
-তার আর দরকার হবে না ।
-কেন ? আমাকে বিশ্বাস করেন বুজি ?
-হুম ।
-আমি কিন্তু ততটা বিশ্বস্ত না ।
-যতটা বিশ্বস্ত ততটাই ভালো । এর বেশি দরকার নেই ।
.
ঐদিন এটুকু বলে বিদায় নেই । তারপর ও প্রায়ই ম্যাসেজ
দিত । টুকিটাকি কথা হত । ওর আর আমার একই থানায়
বাড়ি । ও সরকারি মহিলা কলেজে ইন্টার ফার্স্ট ইয়ারে
পড়ত । আমি এবার ভর্তি যোদ্ধা মানে অনার্স ভর্তি
পরীক্ষা দেব ।
ওর সাথে যখনই কথা হতো ও বলত, ভাইয়া আপনি না ট্রিট
চেয়েছিলেন । আসুন না আজ ।
-আমি তো ফান করেছিলাম ।
-আচ্ছা ঠিক আছে । কিন্তু আমরা তো এমনিই মিট করতে
পারি ।
-হ্যা তা ঠিক । একদিন ফ্রী হলে দেখা করব ।
-ওকে ।
.
আজ ওকে ম্যাসেজ দিলাম । আপনার কলেজের কাছে
একটু কাজ আছে । দুইটায় ঐখানে থাকব ।
-সত্যি ! আমি কলেজের প্রথম গেটে দাঁড়িয়ে ।
-কিন্তু আপনাকে চিনব কিভাবে ?
-01732485*** এটায় কল দিবেন ।
-ওকে ।
.
আমি ভর্তি ফরম তুলে ওকে ফোন দিলাম ।
-হ্যালো । আমি আপনার কলেজের সামনে ।
-এই যে আমি । হলুদ ড্রেস পড়া ।
-একটু দাঁড়ান । দেখতে পেয়েছি ।
বলেই ফোন কেটে দিলাম।
.
দূর থেকে ওকে হলুদ পরীর মত দেখাচ্ছে । আমি অবাক
হয়ে ওকে দেখছি । তারপর এলোমেলো চুলগুলো ঠিক
করতে চেষ্টা করে ব্যর্থ হলাম । এতো সুন্দর একটা মেয়ের
সাথে এতোদিন চ্যাট করেছি, ভাবতেই বুকের ভিতর
হাতুড়ি পেটাতে শুরু হল ।
.
আমি দূর থেকেই হলুদ পরীকে দেখে অন্য পথে চলে
আসলাম । সাদিয়া নামক হলুদ পরীর সাথে দেখা করিনি
। ও এতো সুন্দর । ওর সাথে দেখা করতে আমার কুৎসিত
দেহ সায় দেয়নি । তাই দেখা করিনি । যদি আমাকে
দেখে ওর বন্ধুত্ব করার ইচ্ছা না থাকে । দূর থেকেই
আমাদের বন্ধুত্ব বেঁচে থাক!
.
Ashik Khan(মিয়া ভাই)

শেয়ার করুন

কোন মন্তব্য নেই

উত্তর দিতে